শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড় এর একজন বাসিন্দা সাদেক হোসেন বুকে প্রচন্ড ব্যথা অনুভব করেন।এমতাবস্থায় তার একজন প্রতিবেশী তাকে পরামর্শ দেন রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে যাওয়ার জন্য। সাদেক সাহেব তার পরামর্শে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চলে আসেন। সেখানে ইসিজি, ইকো, এক্স-রে, ইটিটি পরীক্ষার পাশাপাশি রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা পরিমাপ করে জানা যায়, তার হৃদরোগ নেই। গ্যাস্ট্রিকের কারণেই তার এই বুকে ব্যথা। হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক রোগীকে মেডিসিন বিশেষজ্ঞের কাছে চিকিৎসা নিতে বলেন। তিনি আরও জানান, রোগী এই চিকিৎসা তার স্থানীয় হাসপাতালেই নিতে পারতেন।

পরবর্তীতে সাদেক সাহেব নিজ এলাকায় ফিরে যান এবং সদর হাসপাতাল এর একজন মেডিকেল অফিসার কে দেখিয়ে এখন বেশ ভালো আছেন। কিন্তু এই চিকিৎসার জন্য ঢাকা আসা যাওয়ায় তিনি যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন আর্থিক ভাবে তেমনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন শারীরিক ও মানসিক ভাবে।

আর এভাবে প্রতিনিয়তই সঠিক তথ্য ও দিক নির্দেশনার অভাবে ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন শত শত মানুষ। রোগের প্রাথমিক পরামর্শের জন্য রোগী কোথায় যাবেন, কোন চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নেবেন, কতটুকু অসুস্থ হলে কোন পর্যায়ের হাসপাতাল কিংবা বিশেষজ্ঞের কাছে যাবেন এমন তথ্যগুলো সঠিক সময়ে পাওয়া সত্যিই দুরূহ।

দেশে প্রচলিত এমন চিকিৎসা ব্যাবস্থাপনায় রেফারেল পদ্ধতির কথা বারবার ই বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। রেফারেল সিস্টেম চালু না থাকায় যে রোগীর মেডিসিনের চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার কথা, সে যাচ্ছে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে; গ্যাস্ট্রোলজির রোগী যাচ্ছে মেডিসিনের চিকিৎসকের কাছে। এতে রোগীর আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে, সময় নষ্ট হচ্ছে। অপরদিকে জেনারেল প্রেক্টিশনাররা যেমন কাজের সুযোগ পাচ্ছেন না অপরদিকে তেমনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের উপর বাড়ছে অহেতুক চাপ।

এই রেফারেল পদ্ধতি নিয়ে আবার অনেকর মধ্যেই রয়েছে সংশয়। স্বাধারণ মানুষ আমরা অনেকই জানি না রেফারেল পদ্ধতি মূলত চিকিৎসা ব্যাবস্থার বিভিন্ন ধাপ। এখানে একজন রোগী চাইলেই একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এর কাছে যেতে পারেন না। তিনি প্রথমে একজন জেনারেল প্রেক্টিশনার এর নিকট তার সমস্যা নিয়ে যাবেন। এরপর সেই ডাক্তার তাকে চিকিৎসা দিবেন অথবা অধিকতর গুরুতর মনে করলে তাকে একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার বা বিশেষ হাসপাতাল এর পরামর্শ দিবেন। রেফারেল পদ্ধতি চালু হলে একজন রোগী তার রোগ ও চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পর্কে ধারণা পেয়ে যাবেন খুব সহজেই। আর গুরুতর ক্ষেত্রে তাকে কোথায় কোন ডাক্তার বা হাসপাতাল এ যাওয়া উচিৎ তার সামগ্রীক নির্দেশনাও পেয়ে যাবে হাতের নাগালেই।

স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে এমন প্রয়োজনের কথা ভেবে এবং দেশের প্রতিটি কোনায় ডিজিটাল স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দেবার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য বিডি কাজ শুরু করেছে এই বহুল প্রত্যাশিত রেফারেল পদ্ধতি নিয়ে। আপনার শারীরিক যে কোন সমস্যার প্রাথমিক চিকিৎসা বা দিক নির্দেশনা প্রদানে সদা প্রস্তুত স্বাস্থ্য বিডি র জেনারেল ফিজিশিয়ান টিম। সেবাটি নিতে এখনি ফোন করুন 01400-040404 নম্বরে। এছাড়া দেশের সুনামধন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের পরামর্শ নিতে ঘরে বসেই অনলাইনে ভিডিও কনসাল্টেশন করুন স্বাস্থ্য বিডি এ্যাপ এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *